আপিলের পরও মেসির নিষেধাজ্ঞা বহাল

43

প্রতিপক্ষের ফুটবলারকে আঘাত করে দুই ম্যাচ নিষিদ্ধ হয়েছেন লিওনেল মেসি। স্প্যানিশ ফুটবল ফেডারেশন কমিটি (আরএফইএফ) দেওয়া এই নিষেধাজ্ঞার বিপক্ষে আপিল করেছিল বার্সা কর্তৃপক্ষ।

তবে পূর্বের নিষেধাজ্ঞা বহাল রয়েছে।

দেশটির ফুটবল ফেডারেশনের কম্পিটিশন কমিটির কাছে শাস্তি কমানোর জন্য আবেদন করে বার্সেলোনা। তবে তাদের দাবি প্রত্যাখ্যান করেছে কর্তৃপক্ষ। জানিয়ে দিয়েছে, বহাল থাকবে শাস্তি। ফলে কাতালানদের পরের ম্যাচেও খেলা হচ্ছে না ক্লাব অধিনায়কের।

নিষেধাজ্ঞার কারণে কোপা দেল রে’তে করনেয়া বিপক্ষে খেলতে পারেননি মেসি এবং লা লিগায় এলচে’র বিপক্ষেও মেসিকে ছাড়াই মাঠে নামবে জায়ান্ট দলটি।

এর আগে গত রোববার দিবাগত রাতে অ্যাতলেতিক বিলবাওয়ের বিপক্ষে স্প্যানিশ সুপার কোপার ফাইনালের অতিরিক্ত সময়ের অন্তিম মুহূর্তে লাল কার্ড দেখে মাঠ ছাড়েন মেসি। যা বার্সেলোনার খেলোয়াড় হিসেবে আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ডের প্রথম লাল কার্ড। ১৭ বছরের ক্লাব ক্যারিয়ারে যেটি প্রথম।

ম্যাচের তখন ১২০ মিনিট চলছে। বার্সা পিছিয়ে ৩-২ ব্যবধানে। সেই মুহূর্তে মাঝমাঠ থেকে বল নিয়ে আক্রমণে ওঠার সময় বিলবাওয়ের স্ট্রাইকার আসিয়ের ভিলালিব্রে বাধা দেন মেসিকে। মেজাজ হারিয়ে ফেলেন ৩৩ বছর বয়সী তারকা। আসিয়েরকে আঘাত করে বসেন তিনি। ভিডিও অ্যাসিস্ট্যান্ট রেফারির (ভিএআর) সাহায্য নিয়ে ম্যাচ রেফারি সরাসরি লাল কার্ড দেখান তাকে।

মাঠে আক্রমণাত্মক মনোভাবের জন্য শুরুতে ধারনা করা হয়েছিল, বড় ধরনের শাস্তি পেতে পারেন মেসি। ‘এলএমটেন’ ১২ ম্যাচ নিষিদ্ধ হতে পারেন, এমন গুঞ্জনও উঠেছিল। তবে আরএফইএফ মেসির ২ ম্যাচ শাস্তি কার্যকর করেছে।