ইংল্যান্ডকে হারানোর ম্যাচে ভারতীয় অধিনায়ক মিথালির বিশ্বরেকর্ড

30

দুই ম্যাচ জিতে আগেই সিরিজের শিরোপা নিশ্চিত করেছিল স্বাগতিক ইংল্যান্ড নারী ক্রিকেট দল। শনিবার রাতে শেষ ম্যাচ জিতে হোয়াইটওয়াশ এড়িয়েছে ভারতের নারীরা। এ ম্যাচে বিশ্বরেকর্ড গড়ে দলকে জিতিয়েছেন অধিনায়ক মিথালি রাজ।

ওরচেস্টারের কাউন্টি গ্রাউন্ড মাঠে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ভারতের জয়টি ৪ উইকেটের ব্যবধানে। আগে ব্যাট করে ২১৯ রান করেছিল ইংল্যান্ড। জবাবে মিথালি রাজের ৭৫ রানের অপরাজিত ইনিংসের সুবাদে ২১ বল হাতে রেখেই ম্যাচ জিতে নিয়েছে ভারত।

ভারতকে ম্যাচ জেতানো ইনিংসটিতে ৮৬ বল খেলেছেন মিথালি। যেখানে ছিল ৮ চারের মার। এছাড়া বাঁহাতি ওপেনার স্মৃতি মান্ধানা ৫৭ বলে ৮ চারের মারে করেছেন ৪৯ রান। এ দুজনের ব্যাটেই মূলত জয়ের ভিত পায় ভারতীয়রা। শেষ পর্যন্ত ৬ উইকেট হারিয়ে ম্যাচ জিতেছে তারা।

এই ম্যাচে ৭৫ রান করার মাধ্যমে আন্তর্জাতিক নারী ক্রিকেট সর্বোচ্চ রানের মালিক হয়ে গেছেন ৩৮ বছর বয়সী মিথালি। ম্যাচটি শুরুর আগে তিন ফরম্যাট মিলে তার সংগ্রহ ছিল ১০২৬২ রান। ইনিংসের ২৪তম ওভারে ১২তম রান নেয়ার মাধ্যমে তিনি ছাড়িয়ে যান ১০২৭৩ রান করা ইংল্যান্ডের সাবেক অধিনায়ক শার্লট এডওয়ার্ডসকে।

শনিবারের ম্যাচের পর এখন তিন ফরম্যাট মিলে মিথালির সংগ্রহ ১০৩৩৭ রান। মিথালি ও শার্লট বাদে আর কোনো নারী ক্রিকেটারের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ৮ হাজার রানও নেই। এ তালিকায় তিন নম্বরে থাকা সুজি বেটসের সংগ্রহ ৭৮৪৯ রান।

ম্যাচ শেষে এ বিশ্বরেকর্ডের ব্যাপারে জিজ্ঞেস করা হলে অল্প কথায় মিথালির উত্তর, ‘আমি শুধু খুশি। ধন্যবাদ।’ তবে দলকে জেতানোর আনন্দ ছিল তার কণ্ঠে। মিথালি বলেছেন, ‘আমি কখনও মাঠে হাল ছেড়ে দেইনি। আমি দলের জন্য ম্যাচটি জিততে চেয়েছিলাম।’

২০১৭ সালের জুলাইয়ে বিশ্বকাপের ১১তম আসরে শার্লটকে পেছনে ফেলে নারী ওয়ানডের সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক হয়েছিলেন তিনি। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে খেলা সেই ম্যাচটিতেই প্রথম নারী ক্রিকেটার হিসেবে ওয়ানডেতে ৬ হাজার রানের মাইলফলকে প্রবেশ করেন তিনি।

সবমিলিয়ে ওয়ানডে ক্রিকেটে ৫৮ ফিফটির সঙ্গে ৭টি সেঞ্চুরিতে ৭৩০৪ রান করেছেন মিথালি। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সদ্য সমাপ্ত সিরিজটিতে তিন ম্যাচেই পঞ্চাশ পেরিয়েছেন ভারতীয় অধিনায়ক।

২০১৯ সালের সেপ্টেম্বরে টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট থেকে অবসর নিয়েছেন তিনি। এই ফরম্যাটে ৩৭.৫২ গড়ে তার সংগ্রহ ২৩৬৪ রান। যা তাকে বসিয়েছেন সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহকের তালিকায় সপ্তম স্থানে। এছাড়া টেস্ট ক্রিকেটে ৪ ফিফটি ও ১ সেঞ্চুরিতে ১১ ম্যাচে ৬৬৯ রান করেছেন মিথালি।