করোনায় দেশের তিন জেলার হাসপাতালে আরও ৫৬ মৃত্যু

32

করোনায় আক্রান্ত হয়ে দেশের তিন জেলার হাসপাতালে গত ২৪ ঘন্টায় মোট নিহত হয়েছেন ৫৬ জন। এদের মধ্যে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালের করোনা ইউনিটে ১৯, খুলনার চারটি সরকারি হাসপাতালে ১৯ এবং ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের করোনা ইউনিটে গত ২৪ ঘণ্টায় ১৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। বিস্তারিত প্রতিনিধির পাঠনো খবরে-

রাজশাহী : রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালের করোনা ইউনিটে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ১৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে করোনায় আক্রান্ত হয়ে আটজন ও উপসর্গ নিয়ে ১১ জন মারা গেছেন।

মঙ্গলবার (১৩ জুলাই) রামেক হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল শামীম ইয়াজদানী এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, ‘মৃতদের মধ্যে রাজশাহীর ছয়জন, চাঁপাইনবাবগঞ্জের দুজন, নাটোরের তিনজন, নওগাঁর তিনজন, পাবনার তিনজন, সিরাজগঞ্জের একজন ও বগুড়ার একজন রয়েছেন। করোনায় আক্রান্ত হয়ে রাজশাহীর চারজন, চাঁপাইনবাবগঞ্জের একজন, নাটোরের একজন, নওগাঁর একজন ও বগুড়ার একজন মারা যান। উপসর্গ নিয়ে রাজশাহীর দুজন, চাঁপাইনবাবগঞ্জের একজন, নাটোরের দুজন, নওগাঁর দুজন, পাবনার তিনজন ও সিরাজগঞ্জের একজন মারা যান। মৃতদের পরিবারকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে দাফন করার নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।’

রোগীদের ভর্তি ও সংক্রমণের বিষয়ে রামেক পরিচালক বলেন, ‘গত ২৪ ঘণ্টায় রামেকে নতুন ভর্তি হয়েছেন ৬৩ জন। সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৭৬ জন। রামেকে করোনায় আক্রান্ত হয়ে ২৪১ জন এবং সন্দেহভাজন ও উপসর্গ নিয়ে ২৬৩ জন ভর্তি রয়েছেন। গত ২৪ ঘণ্টায় রামেকে ৪৫৪টি শয্যার বিপরীতে রোগী ভর্তি ছিলেন ৫০৪ জন।’

রামেকের দুই ল্যাবে করোনা পরীক্ষা ও শনাক্তের বিষয়ে তিনি বলেন, ‘গত ২৪ ঘণ্টায় রামেক হাসপাতাল ল্যাবের পিসিআর মেশিনে ২৮২টি নমুনা পরীক্ষায় ১০০ জনের করোনা পজিটিভ রিপোর্ট এসেছে। মেডিকেল কলেজ ল্যাবের পিসিআর মেশিনে ৪৩০টি নমুনা পরীক্ষায় ১৪৩ জনের করোনা পজিটিভ রিপোর্ট এসেছে। মোট পরীক্ষা হয়েছে ৭১২টি। এতে শনাক্ত হয়েছে ২৪৩ জন। পরীক্ষা বিবেচনায় শনাক্তের হার ৩৩ দশমিক ৬৯ শতাংশ।’

খুলনা :  খুলনার চারটি সরকারি হাসপাতালে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে ও উপসর্গ নিয়ে আরও ১৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। এরমধ্যে খুলনা করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতালে ১০ জন, শহীদ শেখ আবু নাসের হাসপাতালের করোনা ইউনিটে একজন, খুলনা জেনারেল হাসপাতালের করোনা ইউনিটে চারজন ও গাজী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চারজন মারা গেছে।

খুলনা করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতালের ফোকালপারসন ডা. সুহাস রঞ্জন হালদার জানান, হাসপাতালে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় পাঁচজন ও উপসর্গ নিয়ে পাঁচজনের মৃত্যু হয়েছে। মৃতরা হলেন- নগরীর সোনাডাঙ্গার আফজাল হোসেন (৫০), দৌলতপুরের সামাদ মোল্লা (৭৫), ফুলবাড়ীগেটের গাজী সামসুর রহমান (৮৪), ১নং কাস্টমঘাটের সুমি (২২) এবং বাগেরহাটের বিষ্ণুপুরের সামসুন্নেছা (৪৭)। হাসপাতালটিতে চিকিৎসাধীন রয়েছেন ১৯৫ জন। এর মধ্যে রেডজোনে ১৩০ জন, ইয়েলোজোনে ২৫ জন, আইসিইউতে ২০ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় ভর্তি হয়েছেন ৪৩ জন। আর সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৪২ জন।

খুলনার শহীদ আবু নাসের বিশেষায়িত হাসপাতালের করোনা ইউনিটে গত ২৪ ঘণ্টায় একজনের মৃত্যু হয়েছে বলে জানিয়েছেন ডা. প্রকাশ দেবনাথ। মৃত ব্যক্তি হলেন নগরীর সোনাডাঙ্গার আলমগীর মল্লিক (৬৫)। হাসপাতালের করোনা ইউনিটে ভর্তি রয়েছেন ৪৪ জন। এরমধ্যে আইসিইউতে রয়েছেন ১০ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় ভর্তি হয়েছেন ছয়জন আর সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ছয়জন।

খুলনা জেনারেল হাসপাতালের ৮০ শয্যার করোনা ইউনিটের মুখপাত্র ডা. কাজী আবু রাশেদ জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় হাসপাতালে চারজনের মৃত্যু হয়েছে। মৃতরা হলেন- খুলনার রূপসা উপজেলার আইচগাতীর কালাম সরদার (৭৮), একই এলাকার সিংহেরটর এলাকার তাসলিমা (৪৫), ডুমুরিয়ার সৈয়দ মুজিবুর রহমান (৮০) ও একই উপজেলার ঘোনাবান্ধা এলাকার চিত্তরঞ্জন মন্ডল (৮০)। এছাড়া চিকিৎসাধীন রয়েছেন ৭৬ জন, এরমধ্যে ৩৫ জন পুরুষ ও ৪১ জন নারী। গত ২৪ ঘণ্টায় ভর্তি হয়েছেন ১২ জন। সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন আটজন।

গাজী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় করোনায় চারজনের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন হাসপাতালের স্বত্বাধিকারী ডা. গাজী মিজানুর রহমান।

ময়মনসিংহ :  ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের করোনা ইউনিটে গত ২৪ ঘণ্টায় ১৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। এরমধ্যে করোনায় আক্রান্ত হয়ে ১০ জন ও উপসর্গ নিয়ে আটজন মারা গেছেন।

মঙ্গলবার (১৩ জুলাই) সকালে মমেক হাসপাতালের করোনা ইউনিটের ফোকালপারসন ডা. মহিউদ্দিন খান মুন এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

উপসর্গে মৃতরা হলেন- ময়মনসিংহ সদরের আনোয়ারা বেগম (৭০), আবুল বাশার (৬০), আব্দুল কুদ্দুস (৭০), সিরাজুল হক (৬০), কেএম জালালউদ্দিন (৮৭), আব্দুল রাজ্জাক (৬৫), জামালপুর সরিষাবাড়ির মাহফুজা বেগম (৫০), ও টাঙ্গাইল মধুপুরের সুরাইয়া বেগম (৩৪)।

ময়মনসিংহ জেলা সিভিল সার্জন ডা. মোহাম্মদ নজরুল ইসলাম বলেন, ‘ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পিসিআর ল্যাব ও এন্টিজেন টেস্টে ৯৭৫টি নমুনা পরীক্ষা করে ২৬৫ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে।