খুলনার চার হাসপাতালে ২৭ জনের মৃত্যু

34

প্রাণঘাতী করোনায় খুলনার চার হাসপাতালে রেকর্ড ২৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে খুলনা করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতালে ১১ জন, গাজী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ১০ জন ও জেনারেল হাসপাতালের করোনা ইউনিটে পাঁচজন ও আবু নাসের হাসপাতালে একজনের মৃত্যু হয়েছে।

খুলনা ডেডিকেটেড করোনা হাসপাতালের ফোকালপারসন ডা. সুহাস রঞ্জন হালদার জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় এ হাসপাতালে ১১ জনের মৃত্যু হয়েছে। এখানে চিকিৎসাধীন রয়েছেন ১৮৫ জন। এর মধ্যে রেড জোনে ১২৬ জন, ইয়োলো জোনে ১৯ জন, আইসিইউতে ১৯ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় ভর্তি হয়েছেন ৪৬ জন। আর সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৩৯ জন।

এ হাসপাতালে করোনায় মৃতরা হলেন- খুলনার রূপসার বাবুল মোল্যা (৫০), নগরীর কদমতলার জুলেখা (৫৭), খুলনা সদরের হোসনেয়ারা (৫৫), সোনাডাঙ্গার আবুল কালাম আজাদ (৪৬), একই থানার রোকেয়া (৬০), বাগেরহাটের মোড়েলগঞ্জের কুমুদ মণ্ডল (৭৮) ও নড়াইলের পুষ্প রানী (৬৫)। এছাড়া চারজন করোনা উপসর্গে মৃত্যুবরণ করেছেন। বাকিরা উপসর্গে মারা গেছেন।

খুলনার শহীদ আবু নাসের বিশেষায়িত হাসপাতালের করোনা ইউনিটে মো. ইউনুস আলী (৭০) নামের একজনের মৃত্যু হয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় ভর্তি হয়েছেন ৫ জন আর সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন পাঁচজন।

খুলনা জেনারেল হাসপাতালের করোনা ইউনিটের মুখপাত্র ডা. কাজী আবু রাশেদ জানান, এ হাসপাতালে পাঁচজনের মৃত্যু হয়েছে। মৃতরা হলেন, খুলনা মহানগরীর বানিয়াখামার এলাকার মমতাজ বেগম (৩৫), মিয়াপাড়ার শামীম আরা (৬০), রূপসার মোজাফফর শেখ (৬০), একই উপজেলার হানিফ মোড়ল (৬৫) ও নড়াইলের মুলতাহির এলাকার রামেসা খাতুন (৭৫)।

এছাড়া এ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন ৭১ জন। এর মধ্যে ৩৪ জন পুরুষ ও ৩৭ জন মহিলা। গত ২৪ ঘণ্টায় ভর্তি হয়েছেন ২৩ জন। সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ১৬ জন।

গাজী মেডিকেল হাসপাতালের সত্ত্বাধিকারী ডা. গাজী মিজানুর রহমান জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় হাসপাতালের করোনা ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ১০ জনের মৃত্যু হয়েছে। মৃতরা হলেন- খুলনার ডুমুরিয়ার চুকনগরের বিষু মণ্ডল, একই উপজেলার আবেদা (৬৫), রূপসার মনিরা বেগম (৬৫), দিঘলিয়ার আব্দুল হাকিম (৪৫), খুলনা সদরের রুবিনা (৫০), নগরীর ইসলাম কমিশনার রোডের মোস্তফা (৪০), খালিশপুরের সেলিম শিকদার (৫৮), যশোরের নওয়াপাড়ার কুলসুম বেগম (৭০), অভয়নগরের ফাতেমা (৭৫) ও একই উপজেলার গোরাপানি এলাকার আনোয়ারা (৪৫)।

বেসরকারি এ হাসপাতালের চিকিৎসাধীন রয়েছেন আরও ১২৯ জন। এর মধ্যে আইসিইউতে রয়েছেন ৮ জন ও এইচডিইউতে আছেন ১০ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় ভর্তি হয়েছেন ৩৬ জন। সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ২১ জন।