গরুর জন্য অ্যাম্বুলেন্স সার্ভিস

35

গরুর জন্য অ্যাম্বুলেন্স-সেবা চালু করছে ভারতের উত্তর প্রদেশ রাজ্য সরকার। ভারতের ইতিহাসে প্রথমবারের মতো এমন অভিনব অ্যাম্বুলেন্স সার্ভিস চালু হতে যাচ্ছে। গুরুতর রোগাক্রান্ত গরুদের হাসপাতালে নেওয়ার কষ্ট দূর করতে এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে মুখ্যমন্ত্রী যোগি আদিত্যনাথের সরকার। খবর এনডিটিভির।

স্থানীয় সময় রোববার (১৫ নভেম্বর) রাজ্যের দুগ্ধজাত পণ্য উন্নয়ন, প্রাণিকল্যাণ ও মৎস্যবিষয়ক মন্ত্রী লক্ষ্মী নারায়ণ চৌধুরী জানান, এরই মধ্যে গরুদের জন্য ৫১৫টি অ্যাম্বুলেন্স প্রস্তুত করা হয়েছে। তিনি আরও বলেন, সম্ভবত, দেশে এটিই প্রথম গরুদের জন্য অ্যাম্বুলেন্স সেবা চালুর পদক্ষেপ।

মথুরায় সাংবাদিকদের সামনে তিনি আরও বলেন, ১১২টি ইমার্জেন্সি সার্ভিস নাম্বার চালু করা হচ্ছে। নতুন এ সেবার মাধ্যমে গুরুতর অসুস্থ গরুদের দ্রুত চিকিৎসা নিশ্চিত করা হবে। সেখানে একজন ভেটেরিনারি চিকিৎসক ও দুইজন সহকারী থাকবেন। ফোন পাওয়ার ১৫ থেকে ২০ মিনিটের মধ্যে অ্যাম্বুলেন্স নিয়ে অসুস্থ গরুর কাছে পৌঁছে যাবেন তারা।

মন্ত্রী আরও জানান, গরুর গুণগত মানসম্পন্ন বীর্য বিনামূল্যে দেয়ার মাধ্যমে ও ভ্রূণ প্রতিস্থাপন প্রযুক্তির সাহায্যে রাজ্যে গরু উন্নয়ন কর্মসূচির গতি বাড়ানো হবে। তিনি বলেন, ভ্রূণ প্রতিস্থাপন প্রযুক্তি রাজ্যে নতুন বিপ্লবের সূচনা করবে। কারণ এর মাধ্যমে বাছুর জন্ম দিতে অক্ষম গরুও অনেক বেশি দুধ দিতে সক্ষম হবে।

লক্ষ্মী নারায়ণ চৌধুরী বলেন, এই প্রকল্প চালু হলে রাস্তাঘাটে ঘুরে বেড়ানো মালিকবিহীন গরুর সংখ্যা কমে যাবে। প্রতিদিন কমপক্ষে ২০ লিটার দুধ দেয় এমন গরুকে ফেলে দিতে চাইবেন না খামারিরা।

আগামী ডিসেম্বর মাস থেকে প্রকল্পটি চালু হবার কথা রয়েছে। অসুস্থ গরুর খবর নেওয়ার জন্য লখনৌতে একটি কল সেন্টারও তৈরি করার কথা জানা গেছে। মথুরাসহ উত্তর প্রদেশের আট জেলায় প্রাথমিকভাবে প্রকল্পটি চালু হবে। এর আগে প্রথমবারের মতো মালিকবিহীন গরুদের গোয়ালঘরের ব্যবস্থা করার জন্য তহবিলের অনুমোদন দেয় যোগি আদিত্যনাথের সরকার।