চতুর্থ টেস্টেও সবাই নেগেটিভ, বুধবার সন্ধ্যায় কুইন্সটাউন যাত্রা

58

দুই সপ্তাহের কোয়ারেন্টাইন চারটি করোনা টেস্ট, যার প্রথমটি ছিল নিউজিল্যান্ডে পা রাখার প্রথম দিনই। দ্বিতীয়টি ছিল তৃতীয় দিন। আর ষষ্ঠ দিন মানে অর্থাৎ ২ মার্চ হয়েছে তিন নম্বর কোভিড-১৯ টেস্ট। বলার অপেক্ষা রাখে না, তিনবারই টিম বাংলাদেশের ক্রিকেটার, কোচিং-সাপোর্টিং স্টাফ আর অফিসিয়ালস সবাই নেগেটিভ ছিলেন।

তাই সপ্তম দিন থেকে জিম আর অষ্টম দিন থেকে ৭ জনের দলে ভাগ হয়ে গুচ্ছ অনুশীলনের সুযোগ মিলেছে। বাকি ছিল চতুর্থ ও শেষ টেস্ট। সেটায় সবাই নেগেটিভ হলেই ১০ মার্চ থেকে পুরো জাতীয় দলের বহর মুক্ত বিহঙ্গ।

দেশে সমর্থকদের অধীর আগ্রহ, কী খবর ক্রাইস্টচার্চের? শেষ করোনা টেস্ট কি হয়েছে? তার ফল কী? সবাই নেগেটিভ? পুরো দল মুক্ত হবে কবে কখন? ভক্ত-সমর্থকদের সে কৌতূহলের জবাবে আছে সুখবর, ক্রাইস্টচার্চে তামিম ইকবাল, মুশফিকুর রহীমরা সবাই সুস্থ আছেন।

এরই মধ্যে সোমবার (৮ মার্চ) চতুর্থ টেস্ট হয়ে গেছে। তার রিপোর্টও মিলেছে। পুরো বহরের সবাই নেগেটিভ। তাই আর কোন সমস্যা নেই। মাত্র ২৪ ঘন্টা পর ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইন শেষে পুরো দল একসঙ্গে চলাফেরা করতে পারবে।

টাইগারদের পরবর্তী গন্তব্য প্রাকৃতিক সৌন্দর্য্যে ঘেরা কুইন্সটাউন। আগামীকাল (১০ মার্চ) ক্রাইস্টচার্চ সময় সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার ফ্লাইটে কুইন্সটাউন যাত্রা করবে টিম বাংলাদেশ। এবারের নিউজিল্যান্ড সফরে বাংলাদেশ দলের বহরের নেতা জালাল ইউনুস জাগো নিউজকে দিয়েছেন এ খবর।

বিসিবি পরিচালক ও মিডিয়া কমিটির চেয়ারম্যান মুঠোফোনে জয়বাংলানিউজকে জানান, এখানের খবর ভাল। সবাই সুস্থ আছে। আমাদের চতুর্থ কোভিড-১৯ টেস্ট হয়ে গেছে গতকাল। সেটায়ও সবাই নেগেটিভ। আর কোন সমস্যা নেই। আমরা ইনশাল্লাহ আগামীকাল সন্ধ্যায় কুইন্সটাউনের উদ্দেশ্যে যাত্রা করব।

জালাল আরও জানান, ক্রাইস্টচার্চ থেকে বিমানে ৫০ মিনিটের পথ কুইন্সটাউন। তারা স্থানীয় সময় বিকেল ৩টায় ক্রাইস্টচার্চের এই হোটেল ছেড়ে অন্য একটি হোটেলে ২ ঘন্টার জন্য অবস্থান করবেন। লবিতে মালপত্র রেখে সবাই হোটেল রুমে অবস্থান করবেন। সেখান থেকে সরাসরি বিমানবন্দর চলে যাবে জাতীয় দলের বহর।