টানা হেঁচকি ওঠায় হাসপাতালে ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট

26

টানা হেঁচকি উঠতে থাকায় পরীক্ষা-নিরীক্ষার জন্য ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট জইর বলসোনারোকে হাসপাতালে নেওয়ার কথা জানিয়েছে তার কার্যালয়। ২৪ থেকে ৪৮ ঘণ্টা তাকে পর্যবেক্ষণে রাখা হবে। তবে এই সময় তাকে হাসপাতালে রাখা হবে কিনা তা নিশ্চিত নয়। ব্রাজিলের প্রেসিডেন্টের কার্যালয়ের বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, প্রেসিডেন্ট ভালো বোধ করছেন আর তার অবস্থার উন্নতি হচ্ছে। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য জানা গেছে।

২০১৮ সালে নির্বাচনি প্রচারের সময় ছুরিকাঘাতে আহত হন জইর বলসোনারো। তার পর থেকেই উগ্র ডানপন্থী এই নেতার স্বাস্থ্য নিয়ে উদ্বেগ রয়েছে। ওই হামলায় গুরুতর আহত হলে বলসোনারোর শরীরের ৪০ শতাংশ রক্ত ঝরে যায়। ছুরিকাঘাতে আহত হওয়ার পর বেশ কয়েকটি সার্জারির মধ্য দিয়ে যেতে হয় তাকে।

চিকিৎসা বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন জইর বলসোনারোর হেঁচকি ওঠার সঙ্গে হয়তো তার পেটে সার্জারির সঙ্গে সম্পর্ক থাকতে পারে। সংবাদমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট পেট ব্যাথাতেও ভুগছেন। তবে এই মাসের শুরুতে হওয়া দাঁতের সার্জারির সঙ্গে হেঁচকি ওঠার সম্পর্ক থাকতে পারে বলেও আশঙ্কা করা হচ্ছে।

প্রায় আড়াই বছর ধরে দায়িত্ব পালনের সময় নানা বিতর্কের মুখে পড়েছেন ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট জইর বলসোনারো। করোনাভাইরাস মহামারি মোকাবিলা নিয়েও চাপের মুখে পড়েন তিনি। ভ্যাকসিন ক্রয়ে দুর্নীতির অভিযোগে এই মাসের শুরুতে ব্রাজিলের রাস্তায় বিক্ষোভ করেছে লাখ লাখ মানুষ।

করোনাভাইরাসের মহামারিতে গত মাসে ব্রাজিলে মৃতের সংখ্যা পাঁচ লাখ ছাড়িয়ে যায়। যা যুক্তরাষ্ট্রের পর পৃথিবীতে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ। বছর খানেক আগে নিজেও করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হন বলসোনারো। পরে অবশ্য সম্পূর্ণ সুস্থ হয়ে ওঠেন।