টেস্ট র‍্যাংকিংয়ে আফগানিস্তানের নিচে নেমে গেল বাংলাদেশ

95

দুই দলের টেস্ট অভিজ্ঞতার পার্থক্য ১৭ বছরের। অথচ সেই ‘জুনিয়র’ আফগানিস্তানই টেস্ট র‍্যাংকিংয়ে বাংলাদেশকে ছাড়িয়ে গেল।

বুধবার (৬ জানুয়ারি) আইসিসির হালনাগাদ টেস্ট র‍্যাংকিংয়ে দুই ধাপ পিছিয়ে দশে নেমে গেছে বাংলাদেশ। আর নয়ে উঠে এসেছে আফগানিস্তান। বাংলাদেশের রেটিং পয়েন্ট যেখানে ৫৫, আফগানদের সেখানে ৫৭ পয়েন্ট।

এর আগ পর্যন্ত বাংলাদেশ ছিল টেস্ট র‍্যাংকিংয়ের নয় নম্বরে। দশে ছিল জিম্বাবুয়ে। আর আফগানিস্তান ছিলে এগারো নম্বরে। হালনাগাদ তালিকায় আফগানরা দুই ধাপ উপরে উঠে এসেছে। আর জিম্বাবুয়ে দশের বাইরে চলে গেছে।

২০১৭ সালে টেস্ট স্ট্যাটাস পাওয়া আফগানিস্তান ২০১৮ সালে অভিষেকের পর এখন পর্যন্ত মাত্র ৪টি টেস্ট খেলেছে। এর মধ্যে দুটিতে জয় পেয়েছে এবং দুটিতে হেরে গেছে।

টেস্ট ক্রিকেটে বাংলাদেশ ও আফগানিস্তান মুখোমুখি হয়েছে একবারই। ২০১৯ সালের সেপ্টেম্বরে ঘরের মাটিতে ওই টেস্টে আফগানদের কাছে ২২৪ রানের বিশাল ব্যবধানে হেরে গিয়েছিল বাংলাদেশ।

২০২০ সালে বাংলাদেশ সর্বশেষ টেস্ট ম্যাচ জেতার স্বাদ পেয়েছিল। সেটাও ঘরের মাটিতে দুর্বল জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে। কিন্তু ২০১৯ সালের ফেব্রুয়ারি থেকে ২০২০ সালের শুরুর দিকে পাকিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচ পর্যন্ত সবগুলো টেস্টেই হেরেছে বাংলাদেশ।

বাংলাদেশ অনেক বেশি টেস্ট ম্যাচ খেলেও র‍্যাংকিংয়ে আফগানিস্তানের চেয়ে পিছিয়ে থাকার কারণ অবশ্য ভিন্ন। আইসিসির র‍্যাংকিং করার পদ্ধতির কারণেই এমনটা হয়েছে।

আইসিসি মূলত র‍্যাংকিং হালনাগাদের জন্য ৩৬ মাস থেকে ৪৮ মাসে একটি সময়কাল বিবেচনা করে। এই সময়ে টেস্ট খেলুড়ে কোনো দল যদি তার চেয়ে শক্তিশালী দলকে হারিয়ে দেয় তাহলে জয়ী দল বাড়তি পয়েন্ট পায়।

যেহেতু বাংলাদেশকে হারিয়ে দিয়েছে আফগানিস্তান, তাই তাদের পয়েন্ট বেশি বেড়েছে। এই সময়কালের মধ্যে বাংলাদেশ একমাত্র জিম্বাবুয়ে ছাড়া আর কারো বিপক্ষেই সুবিধা করতে পারেনি। বরং ২০১৮ সালে জিম্বাবুয়ে এবং ২০১৯ সালে হেরেছে আফগানিস্তানের বিপক্ষে।

তবে বাংলাদেশের সামনে ফের একবার নয়ে উঠার সুযোগ আসছে। ঘরের মাঠে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে দুই টেস্টের সিরিজ খেলবে টাইগাররা। সিরিজটি ২-০ ব্যবধানে জিতলেই পুরনো জায়গা ফিরে পাবে মুমিনুলবাহিনী।

এদিকে টেস্ট র‍্যাংকিংয়ে বাংলাদেশের অবনতির দিনে বড় সুসংবাদ পেয়েছে নিউজিল্যান্ড। সিরিজের দ্বিতীয় টেস্টে পাকিস্তানকে বিশাল ব্যবধানে হারানোর পর প্রথমবারের মতো টেস্ট র‍্যাংকিংয়ের শীর্ষে উঠেছে কিউইরা।