দীঘিকে পুরো টাকা দেয়া হয়নি, চাইলেই নেতিবাচক কথা শুনতে হচ্ছে

61

শিশুশিল্পী হিসেবে চলচ্চিত্র অভিনয় করে সাফল্য, সুনাম, পুরস্কার সবই অর্জন করেছেন তিনি। এবার নায়িকা রূপে বড় পর্দায় অভিষেকের অপেক্ষায় আছেন তিনি। বলছি জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার জয়ী অভিনয়শিল্পী প্রার্থনা ফারদিন দীঘি’র কথা।
আগামীকাল ‘তুমি আছো তুমি নেই’ ছবির মাধ্যমে নায়িকা রূপে দীঘির আত্মপ্রকাশ ঘটছে। জীবনে নতুন করে নিজেকে আরো একবার পরিচয় করাতে পেরে বেশ উচ্ছ্বাসিত এই নায়িকা।

এদিকে ‘তুমি আছো তুমি নেই’ শিরোনামের এই ছবিটি নির্মাণ করেছেন পরিচালক দেলোয়ার জাহান ঝন্টু। এতে অভিনয় করেছেন দীঘির বাবা অভিনেতা সুব্রতও।

তবে দীঘির প্রথম ছবি মুক্তির আগেই চলছে নানা আলোচনা-সমালোচনা। এছাড়া দীঘির নেতিবাচক একটি মন্তব্যের কারণে তার বিরুদ্ধে মামলাও করেছেন পরিচালক ঝন্টু।

বিষয়টি নিয়ে ‘হারানো সুর’খ্যাত অভিনেতা সুব্রত বলেন, আমিও দু’রকম কথাই শুনেছি। কেউ বলছে মামলা করেছে আবার কেউ বলছে মামলা হয়নি। আমি আদালতের কোনো নোটিশ পাইনি। পেলে এ বিষয়ে বিস্তারিত কথা বলবো।

বিষয়টি নিয়ে পরিচালক দেলোয়ার জাহান ঝন্টু সঙ্গে কথা বলার প্রসঙ্গে অভিনেতা সুব্রত বলেন, পরিচালকের সঙ্গে একবার না বহুবার কথা বলার চেষ্টা করেছি। তাকে, তার ছেলে, তার প্রযোজককেও বহুবার ফোন দিয়েছি। কেউ আমার ফোন ধরছে না। এর আগে, আমার মেয়ের যে কথায় তিনি রাগ করেছে, তার জন্য দীঘিও তার কাছে ক্ষমা চেয়েছে, যা বহু গণমাধ্যমে এসেছে। কিন্তু তিনি কোনো কথাই শুনছেন না।

সঙ্গে যোগ করে সুব্রত আরো বলেন, দীঘির যে কথাটি শুনে তিনি রাগ করলেন, তাকে অনুরোধ করেছিলাম পুরো ভিডিওটি দেখার। কিন্তু তিনি তো তার কাথায় অটল। এ সম্পর্কে আমার আর কিছু বলার নেই।

ঝন্টুর ছবিতে এবারই কি প্রথম অভিনয় করলেন? উত্তরে তিনি বলেন, হ্যাঁ, ৩৬ বছরের অভিনয় ক্যারিয়ারে এবারই প্রথম তার ছবিতে কাজ করলাম। তিক্ত অভিজ্ঞতা হলো। দীঘিরও প্রথম অভিনয় তার ছবিতে।’

তিক্ত অভিজ্ঞতা বলার কারণ জানতে চাইলে সুব্রত বলেন, তিক্ত অভিজ্ঞতা বলবো এই কারণে, আমার কোনো ছবি নিয়ে এত সমালোচনা হয়নি, এটার মতো। তাছাড়া তার ছবিতে কাজ করে আমি পারিশ্রমিক পাইনি, দীঘিকেও পুরো টাকা দেয়া হয়নি। কয়েকবার টাকা চাওয়া হয়েছে। তাকে এও বলেছি, আমার মেয়ের প্রথম ইনকাম, এটা নিয়ে এমনটা করবেন না। সে কোনো কথাই কানে তোলেননি। পারিশ্রমিক চাইতে গেলেই যদি নেতিবাচক কথাবার্তা শুনতে হচ্ছে, তাহলে কী আর বলবো। তার মতো অভিজ্ঞ মানুষের কাছ থেকে এটা আশা করিনি।