দেশের তিন জেলার করোনা হাসপাতালে আরও ৪৪ মৃত্যু

37

দেশের তিন জেলার করোনা হাসপাতালে করোনায় আক্রান্ত হয়ে ও উপসর্গ নিয়ে আরও ৪৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। এদের মধ্যে কুষ্টিয়ায় ১৮, রাজশাহীতে ১৪ এবং ময়মনসিংহে ১২ জন রয়েছে। বিস্তারিত প্রতিনিধির পাঠানো খবরে-

কুষ্টিয়া :  কুষ্টিয়া করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতালে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে ও উপসর্গ নিয়ে আরও ১৮ জনের মৃত্যু হয়েছে।

শনিবার (১০ জুলাই) সকালে কুষ্টিয়া জেনালের হাসপাতালের তত্বাবধায়ক ড. আবদুল মোমেন এ তথ‌্য নিশ্চিত করে বলেন, ৯ জুলাই সকাল ৮টা থেকে ১০ জুলাই সকাল ৮টা পর্যন্ত চিকিৎসাধীন অবস্থায় আরও ১৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। এরমধ্যে ১৫ জনের করোনা পজিটিভ ও ৩ জনের করোনা উপসর্গ ছিলো।

এদিকে, পিসিআর ল্যাব ও জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয়ের তথ্য মতে, গত ২৪ ঘণ্টায় জেলায় ৫৮৯ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ১৭৬ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। শনাক্তের হার ২৯.৮৮ শতাংশ।

সিভিল সার্জন কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, জেলায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে এ পর্যন্ত ৩২৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। এরমধ‌্যে গত ১১ দিনে মারা গেছেন ১২০ জন। জেলায় এ পর্যন্ত মোট ১০ হাজার ৬০ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন।

 

রাজশাহী : গত ২৪ ঘণ্টায় রাজশাহী মেডিক‌্যাল কলেজ (রামেক) হাসপাতালের করোনা ইউনিটে আরও ১৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। এর আগে গত ২৮ জুন সর্বোচ্চ ২৫ জন মারা যান।

শনিবার (১০ জুলাই) সকালে হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল শামীম ইয়াজদানী বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, ৯ জুলাই সকাল ৮টা থেকে ১০ জুলাই সকাল ৮টার মধ্যে তারা মারা যান।

মৃত ১৪ জনের মধ্যে রাজশাহীর ৭ জন, নাটোরের ৪ জন, পাবনার একজন, চুয়াডাঙ্গার একজন এবং জয়পুরহাটের একজন রোগী ছিলেন। হাসপাতালটিতে এ মাসের ১০ দিনে ১৭১ জনের মৃত্যু হলো। এর আগে জুন মাসে করোনা ইউনিটে মারা গেছেন ৩৫৪ জন।

হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, গত ২৪ ঘণ্টায় হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন ৬০ জন। শনিবার সকাল ৮টা পর্যন্ত এ হাসপাতালের করোনা ইউনিটে ভর্তি আছেন ৫২২ জন। হাসপাতালে মোট করোনা ডেডিকেটেড শয্যার সংখ্যা ৪৫৪টি।

ময়মনসিংহ : ময়মনসিংহ মেডিক‌্যাল কলেজ হাসপাতালের করোনা ইউনিটে গত ২৪ ঘণ্টায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় আরও ১২ জনের মৃত্যু হয়েছে। একই সময়ে করোনা শনাক্ত হয়েছে ১৫৪ জনের।

শনিবার (১০ জুলাই) সকালে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন হাসপাতালের করোনা ইউনিটের ফোকাল পারসন ডা. মহিউদ্দিন খান মুন।

ডা. মহিউদ্দিন খান মুন আরও জানান, বর্তমানে এই হাসপাতালের আইসিইউতে ২১ জনসহ মোট ৪১৭ জন চিকিৎসাধীন আছেন। নতুন করে ভর্তি হয়েছেন ৭৩ জন ও সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৩৩ জন।