নিউজিল্যান্ড না হারলে জাদেজাদের বিশ্বকাপ শেষ

7
সংবাদ সম্মেলনে রবীন্দ্র জাদেজা

প্রথম দুই ম্যাচই ‘শেষ’ করে দিয়েছে ভারতকে। চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী পাকিস্তানের কাছে হারের পর নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে অসহায় আত্মসমর্পণ। যাদের এবারের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে অন্যতম ফেভারিট ধরা হচ্ছিল, সেই বিরাট কোহলিদের সেমিফাইনালের পথটাই অসম্ভব হয়ে দাঁড়িয়েছে। টানা দুই ম্যাচ জিতে আশা বেঁচে থাকলেও শেষ চার তাদের নিজেদের হাতে নেই। তাকিয়ে থাকতে হচ্ছে নিউজিল্যান্ড-আফগানিস্তান ম্যাচের দিকে। আফগানরা জিতলে ভারতের সম্ভাবনা জেগে উঠবে। কিন্তু কিউইরা জিতলেই সব শেষ। তাই সংবাদ সম্মেলনে রবীন্দ্র জাদেজার কাছে এক সংবাদিকের প্রশ্ন ছিল, নিউজিল্যান্ড না হারলে কী হবে? সেখানেই ভারতীয় অলরাউন্ডারের উত্তরে হাসির রোল ওঠে।

শুক্রবার স্কটল্যান্ডকে উড়িয়ে দিয়েছে ভারত। স্কটিশদের মাত্র ৮৫ রানে গুটিয়ে দেওয়ার পথে জাদেজা নিয়েছেন ৩ উইকেট। ম্যাচসেরার পুরস্কার জেতার পর সংবাদ সম্মেলনে এসে ‘অদ্ভুত’ ওই প্রশ্নের সামনে পড়তে হয় বাঁহাতি অলরাউন্ডারকে। গ্রুপ-২-এর যে অবস্থা, তাতে একটা বিষয় পরিষ্কার, নিউজিল্যান্ড শেষ ম্যাচ জিতলেই ভারতের সেমিফাইনালের আশা শেষ। তাই সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের প্রশ্নে কিছুটা বিরক্তই হয়েছিলেন জাদেজা। তবে নিজেকে সামলে নিতেই হয়তো তার অমন রসিকতা।

ভারতীয় সাংবাদিকের প্রশ্নটা ছিল এমন, নিউজিল্যান্ড আফগানিস্তানকে হারিয়ে দিয়ে আমাদের (ভারত) সম্ভাবনা উজ্জ্বল হবে। কিন্তু যদি নিউজিল্যান্ড না হারে আফগানিস্তানের সঙ্গে, তখন? জাদেজার সহজ উত্তর, ‘তাহলে আর কী… ব্যাগ গুছিয়ে বাড়ি চলে যাবো।’

গ্রুপ-১ থেকে পাকিস্তান এরই মধ্যে সেমিফাইনাল নিশ্চিত করেছে। দ্বিতীয় স্থানের লড়াইয়ে এগিয়ে নিউজিল্যান্ড। ৪ ম্যাচে ৬ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে কিউইরা। আফগানদের বিপক্ষে শেষ ম্যাচে তারা জিতলেই এই গ্রুপ থেকে সেমিফাইনালের সব সমীকরণ শেষ হয়ে যাবে।

তবে তারা হেরে গেলে ‘ওপেন’ হয়ে যাবে পথ। তখন নিউজিল্যান্ডের সঙ্গে সুযোগ তৈরি হবে ভারত (৪ পয়েন্ট) ও আফগানিস্তানের (৪ পয়েন্ট)। যদি আফগানরা কিউইদের হারিয়ে দেয় তাহলে তাদের পয়েন্টও হবে ৬। অন্যদিকে ভারত শেষ ম্যাচে নাবিবিয়াকে বড় ব্যবধানে উড়িয়ে দিলে নেট রানরেটে এগিয়ে থেকে পৌঁছে যাবে সেমিফাইনালে। তবে এই সমীকরণ তখনই আসবে, যদি কিউইরা হেরে যায় আফগানদের কাছে।