নেইমার ম্যাজিকে ব্রাজিলের আটে আট

7

সতীর্থকে দিয়ে করালেন প্রথমে এক গোল। পরে নিজে করলেন আরও একটি। গোল-এসিস্ট করে পেরুর বিপক্ষে বিশ্বকাপ বাছাইয়ের ম্যাচটি পুরোপুরি নিজের করে নিলেন নেইমার। যার সুবাদে বাছাইপর্বে আট ম্যাচে টানা অষ্টম জয় তুলে নিয়েছে ব্রাজিল।

জাতীয় দলের হয়ে বরাবরই দুর্বার ব্রাজিলিয়ান সেনসেশন নেইমার জুনিয়র। আরও একবার তারই প্রমাণ দিলেন তিনি। বিশ্বকাপ বাছাইয়ের ম্যাচে পেরুর বিপক্ষে জাদুকরী পারফরম্যান্সে ২-০ গোলের জয় পেয়েছে ব্রাজিল।

ম্যাচের ১৪ মিনিটের সময় নেইমারের এসিস্ট থেকে প্রথম গোলটি করেছিলেন এভারটন রিবেইরো। পরে ৪০ মিনিটের সময় দ্বিতীয় গোলটি করেন নেইমার নিজেই। এ দুই গোলেই জয় নিয়ে মাঠ ছেড়েছে ব্রাজিল।

এ ম্যাচেও ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে খেলা ফুটবলারদের পায়নি ব্রাজিল। তাই প্রায় দ্বিতীয় সারির দলই সাজাতে হয়েছে ব্রাজিল কোচ তিতেকে। গোলবারের নিচে ওয়েভারটনকে রেখে ৪-৪-২ ফরমেশনে দল সাজান তিনি।

প্রথম গোলের জন্য অপেক্ষা করতে হয়েছে ১৪ মিনিট পর্যন্ত। প্রতিপক্ষ ডিফেন্ডারের কাছ থেকে বল কেড়ে নিয়ে ডি-বক্সের মধ্যে এভারটনকে খুঁজে নেন নেইমার। তার পাস থেকে সহজেই বাকি কাজ সারেন আগের ম্যাচেও গোল করা এভারটন।

প্রথমার্ধের বিরতিতে যাওয়ার মিনিট পাঁচেক আগে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন নেইমার নিজেই। এভারটনের জোরালো শট প্রতিপক্ষ খেলোয়াড়ের গায়ে লেগে ফিরে আসরে ফিরতি বলে সহজেই গোল করেন তিনি।

যার সুবাদে বিশ্বকাপ বাছাইয়ে নেইমারের গোল হলো ১২টি। ব্রাজিলের আর কোনো খেলোয়াড়ের বিশ্বকাপ বাছাইয়ে এত বেশি গোল নেই। ম্যাচের দ্বিতীয়ার্ধে দুই দলের কেউই আর গোল করতে পারেননি। ফলে ম্যাচ শেষ হয়েছে ব্রাজিল ২-০ গোলের জয়ে।

আট ম্যাচে টানা অষ্টম জয়ে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষস্থান আরও মজবুত হয়েছে ব্রাজিলের। পূর্ণ ২৪ পয়েন্ট রয়েছে তাদের। সমান ম্যাচে পাঁচ জয় ও তিন ড্রয়ে ১৮ পয়েন্ট নিয়ে দুই নম্বরে আর্জেন্টিনা। পেরুর অবস্থান সাত নম্বরে।