বড় হচ্ছে ফিফা বিশ্বকাপের আসর

সম্প্রতি ফিফার পক্ষ থেকে নিশ্চিত করা হয়েছে বিশ্বকাপের আসরে দল বাড়ানোর বিষয়টি। আগামী ২০২৬ সালে ৩২ দলের জায়গায় বিশ্বকাপ হবে ৪৮ দলের। ফরম্যাটেও হবে কিছু বদল। যেখানে গ্রুপ করা হবে চার দলের। সব মিলিয়ে হবে ১২টি গ্রুপ। গ্রুপের সেরা দুইটি দল রাউন্ড অব ৩২ এ জায়গা করে নেবে। ১২টি গ্রুপ মিলিয়ে তৃতীয় স্থানে শেষ করা দলগুলোর মধ্যে সেরা ৮টি দল যোগ দেবে তাদের সঙ্গে। ফিফা কাউন্সিলের সভায় বিভিন্ন বিষয়েই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। তার মধ্যে উল্লেখযোগ্য নিঃসন্দেহেই ৪৮টি দলের বিশ্বকাপ।

কাতার বিশ্বকাপের সাফল্য ফিফাকে যেন এ সিদ্ধান্ত নিতে আরও সাহায্য করেছে। প্রথমবার মধ্যপ্রাচ্যে বিশ্বকাপ হলেও উত্তেজনার দিক থেকে কোনো কমতি ছিল না। তার মধ্যে টুর্নামেন্টের প্রথম ম্যাচেই সৌদি আরবের অঘটন আরও আকর্ষণীয় করে তোলে। পিছিয়ে পড়েও আর্জেন্টিনাকে হারায় সৌদি আরব। তবে শেষ পর্যন্ত চ্যাম্পিয়ন হয় আর্জেন্টিনাই। ফাইনালও হয় রুদ্ধশ্বাসের। ফ্রান্সের বিরুদ্ধে একটা সময় এগিয়ে ছিল আর্জেন্টিনা। সেখান থেকে খেলা গড়ায় অতিরিক্ত সময়ে। পরে ফয়সালা হয় টাইব্রেকারে। টুর্নামেন্টের বড় প্রাপ্তি মরক্কোর পারফরম্যান্স। আফ্রিকার প্রথম দল হিসেবে সেমিফাইনালে পৌঁছায় মরক্কো। তথাকথিত ছোট দেশগুলো বড় মঞ্চে নজর কাড়তে পারে, প্রমাণ করে দেয় মরক্কো।

ফিফার নতুন ক্যালেন্ডার অনুযায়ী ২০২৬ সালের বিশ্বকাপ শুরু হবে ২৫ মে। আর ফাইনাল হবে ১৯ জুলাই। এ বিশ্বকাপ মিলিতভাবে আয়োজন করবে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, কানাডা এবং মেক্সিকো। সব মিলিয়ে ১০৪টি খেলা হবে আগামী বিশ্বকাপে।