বাইডেনের শাসনামলে উত্তর কোরিয়ার প্রথম ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা

57

যুক্তরাষ্ট্রের ৪৬তম প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন ক্ষমতা গ্রহণের পর এই প্রথম প্রকাশ্যে অস্ত্র পরীক্ষা চালাল উত্তর কোরিয়া। বাইডেন প্রশাসন দেশটির সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক স্থাপনের চেষ্টা অব্যাহত রাখার পরেও গত সপ্তাহে এই পরীক্ষা চালিয়েছে পিয়ংইয়ং।

এদিকে মঙ্গলবার (২৩ মার্চ) বাইডেন প্রশাসনের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, এখনো আলোচনার দ্বার খোলা রয়েছে।

মার্কিন বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এই পরীক্ষাটি ব্যাপকভাবে প্রত্যাশিত ছিল। কারণ দীর্ঘদিন ধরেই তারা ধারণা করেছিলেন যে, উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উন এই অঞ্চলে তার দেশের গুরুত্ব সম্পর্কে বাইডেন প্রশাসনের কাছে একটি বার্তা দেয়ার চেষ্টা করবেন।

একজন মার্কিন কর্মকর্তা সিএনএনকে বলেছেন, উত্তর কোরিয়া কোনো ব্যালাস্টিক ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা চালায়নি। তারা স্বল্প-পরিসরের সম্ভবত আর্টিলারি বা ক্রুজ মিসাইলের পরীক্ষা চালিয়েছে।

এর কারণ হিসেবে তিনি বলেছেন, বাইডেন প্রশাসনকে উত্তর কোরিয়া বোঝাতে চেয়েছে যে, তারা গুরুতর সীমা লঙ্ঘন করেনি এবং এটি পিয়ংইয়ংয়ের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের কূটনৈতিক আলোচনার আগ্রহের বিষয়ে বাধা হবে না।

মঙ্গলবার একজন সিনিয়র মার্কিন কর্মকর্তা বলেছেন, ‘গত সপ্তাহে ঘটে যাওয়া তৎপরতায় উত্তর কোরিয়ার সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের কূটনীতির ভবিষ্যতের দরজা বন্ধ হয়ে গেছে বলে তিনি মনে করেন না। এখনো আলোচনার দ্বার উন্মুক্ত রয়েছে।

এদিকে এ প্রসঙ্গে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন সাংবাদিকদের বলেছেন, ‘আমরা শিখেছি যে এখনো অনেক কিছুই বদলায়নি।’