বানারীপাড়ায় মাকে বাঁচাতে সন্তানদের আবেদন

42

মো. সুজন মোল্লা

বরিশালের বানারীপাড়া উপজেলার উদয়কাঠি ইউনিয়নের দিনমজুর আব্দুস ছোবাহানের স্ত্রী সামিমা বেগম মরণব্যাধী ক্যান্সারে আক্রান্ত। প্রথমে অসুস্থ হলে স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা করানো হয়।

পরে উপজেলা পর্যায়ে এবং বরিশাল শের–ই-বাংলা চিকিৎসা মহাবাদ্যালয়ে ডাক্তার দেখান। সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসায় ক্যান্সার ধরা পরেনি সামিমার। সবশেষ খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পুনরায় চিকিৎসা করালে তার ক্যান্সার হয়েছে বলে চিকিৎসকরা জানান।

তারা পরামর্শ দেন ঢাকায় নিয়ে উন্নত চিকিৎসা করানোর জন্য। কিভাবে উন্নত চিকিৎসা করাবেন সামিমার স্বামী। স্ত্রী অসুস্থ হবার পরে সহায় সম্বল বলতে যা কিছু ছিলো তার সবটাই খরচ করেছেন তিনি। স্ত্রীকে এখন ঢাকায় নিয়ে চিকিৎসা করাতে হলে অনেক অর্থের প্রয়োজন, যা জোগার করা অসহায় আব্দুস ছোবাহানের কাছে কেবলই আকাশ কুসুম কল্পনা ছাড়া আর কিছুইনা।

অসুস্থ সামিমা বানারীপাড়া প্রেসক্লাবে এসেছিলেন ৩য় শ্রণী পড়ুয়া মেয়ে সুমাইয়াকে নিয়ে। মেয়েটির আকুতি সবার মনকেই নাড়া দিবে। কান্নারত অবস্থায় বলতে ছিলো কাকা আমার মাকে বাঁচাতে একটা সংবাদ লিখে দেন।
অজরে কাঁদতে ছিলো শিশুটি। ওর মায়ের ছবি তুলতে গেলে, মায়ের পাশে বসার জন্য বায়না করলো সুমাইয়া।

সুমাইয়া বলে তার বড় একজন ভাই আছেন,নাম ইসানূর মাদরাসায় পড়ে। তবে উপার্জন করতে পারেনা, মাকে ডাক্তার দেখিয়ে বাবা অনেক গরীব হয়ে গেছে। ৩ বেলা তাদের মুখে খাবার তুলে দিতেই কষ্ট হচ্ছে তার।

শিশু সুমাইয়ার আকুতি, কোন মানুষ যদি তার মাকে চিকিৎসার জন্য সহযোগীতা করতে চান তবে ০১৮৭৪৩২৯৬৭৯ নম্বরে কল করে কথা বলে সাহায্য করতে পারেণ।