বেকায়দায় পড়ে একি বললেন বেসামাল ট্রাম্প!

50

বেকায়দায় পড়ে এবার নিজের সমর্থকদের বিরুদ্ধেই কথা বলে উঠলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প, যাদের তিনি ‘ভালোবাসি’ ও ‘দেশপ্রেমিক’ বলেছিলন।

সেই সঙ্গে বললেন, আর কোনো জারি জুরি করতে চান না, সুবোধ বালকের মতো শান্তিপূর্ণ উপায়ে ক্ষমতা হস্তান্তর করতে চান।

তার এমন অবস্থান দেখে বিশ্লেষকরা বলছেন, ক্ষমতার পুরো মেয়াদে ট্রাম্পকে এমন বেসামাল অবস্থায় পড়তে দেখা যায়নি। আর এভাবে সুর নরম করার পাত্রও তিনি নন।

ঘটনার পর প্রশাসন থেকে ইস্তফা দিয়েছেন একের পর এক কর্মকর্তা। আর তা নিয়ে বড় বেকায়দায় ট্রাম্প।

বুধবার মার্কিন সিনেট ভবন ক্যাপিটল হিলের ভেতরে ঢুকে তাণ্ডব চালায় ট্রাম্প সমর্থকরা। তাদের কারো কারো হাতে আগ্নেয়াস্ত্রও ছিল। তারা সেখানে নজিরবিহীন ভাঙচুর ও লুটপাট চালায়। এ সময় গুলিতে নিহত হন অন্তত চার জন।

ট্রাম্প ভোটে হেরে গেলেও পরাজয় মেনে না নিয়ে বিভিন্ন ধরনের উস্কানিমূলক বক্তব্য দিয়ে যাচ্ছিলেন। ক্যাপিটল হিলে ট্রাম্প সমর্থকদের হামলা তারই চূড়ান্ত ফল বলে মনে করছেন রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা।

ঘটনার পর বিশ্বজুড়ে নিন্দার ঝড় বয়ে যাচ্ছে। বিশ্ব নেতারা এ ঘটনাকে লজ্জাজনক বলে আখ্যায়িত করছেন। গত ২০০ বছরে আমেরিকায় ক্যাপিটল হিলে হামলার মতো ন্যক্কারজনক ঘটনা ঘটেনি।

আর মাত্র ১২ দিন ক্ষমতায় থাকার সুযোগ আছে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের। আগামী ২০ জানুয়ারি তাকে ক্ষমতা ছাড়তে হবে।

তবে হামলার ঘটনার পর মেয়াদ শেষ হওয়ার আগেই ট্রাম্পকে ক্ষমতা থেকে সরাতে চায় মার্কিন প্রশাসন। এমনকি তার নিজের রিপাবলিকান দলের নেতারাও সেটা চান। তার বিরুদ্ধে জোরালো হচ্ছে অভিশংসনের দাবি। এ পরিস্থিতিতে ট্রাম্প নিজেও আগে ভাগেই ক্ষমতা ছেড়ে দিতে পারেন।

অন্যদিকে উত্তপ্ত পরিস্থিতি সামাল দিতে মাঠে নেমেছেন ট্রাম্প। অবস্থা বেগতিক বুঝে ভোল পাল্টেছেন। তার সমর্থক বিক্ষোভকারীদের দেশপ্রেমিক ও তাদেরকে ভালোবাসেন বলে জানালেও এবার তাদের বিরুদ্ধে কথা বলেছেন।

এক ভিডিও বার্তায় তিনি বলেছেন, আমার এখন লক্ষ্য মসৃণভাবে ক্ষমতা হস্তান্তর। ২০ জানুয়ারি নতুন প্রশাসন কাজ শুরু করবে। তার আগে আমি সব বুঝিয়ে দিতে চাই।

ক্যাপিটল হিলে যারা তাণ্ডব চালিয়েছেন, তারা আমেরিকার গণতন্ত্রে আঘাত হেনেছেন বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

তিনি বলেন, যারা এই সহিংসতা, ভাঙচুরে জড়িত ছিলেন তারা আমেরিকার প্রতিনিধি নন। আইন ভঙ্গকারীদের মূল্য দিতে হবে।

ডিস্ট্রিক্ট অব কলম্বিয়ায় নিযুক্ত আমেরিকার অ্যাটর্নি জেনারেল মাইকেল শেরউইন ক্যাপিটল হিলে হামলার ঘটনায় ১৫টি মামলা দায়ের করেছেন।