বোনকে পানিতে চুবিয়ে হত্যার দায়ে ভাইয়ের ফাঁসি

25

নড়াইলে ছোট বোনকে হত্যার দায়ে মো. রিপন মোল্যা নামে এক ব্যক্তিকে মৃত্যুদণ্ড ও ২০ হাজার টাকা জরিমানার আদেশ দিয়েছেন আদালত।

সোমবার (১৫ নভেম্বর) সকালে জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক মুন্সী মো. মশিয়ার রহমান এ আদেশ দেন।

রিপন মোল্যা নড়াগাতী থানার কালীনগর গ্রামের মকছেদ মোল্যা ওরফে মকু মোল্যার ছেলে। রায় ঘোষণার সময় আসামি আদালতে উপস্থিত ছিলেন।

মামলার বিবরণে জানা যায়, ২০১৯ সালের ২৫ জানুয়ারি বিকেল ৩টার দিকে নড়াগাতি থানার কালীনগর গ্রামের মকছেদ মোল্যা ওরফে মকু মোল্যার মেয়ে ফাতেমা বাড়ির পাশের নলীয়া নদীতে কাপড় ধুচ্ছিলেন। এ সময় রিপন মোল্যা ধাক্কা দিয়ে তাকে নদীতে ফেলে দেন। পরে চুবিয়ে বাঁশের লাঠি ও ট্যাংগারী দিয়ে মাথায় ও শরীরে আঘাত করে হত্যা করেন।

পরে মরদেহ পানির নিচে কাদায় পুঁতে রাখেন। আসামি রিপন মোল্যার ছেলে রাশেদ মোল্যা ঘটনাটি দেখে ফেলেন। বিকেলে অনেক খোঁজাখুঁজির পরও ফাতেমাকে না পাওয়ায় রাশেদের দেওয়া তথ্যমতে ফাতেমার মরদেহ উদ্ধার এবং রিপনকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

প্রায় তিন বছর পর সাক্ষ্যপ্রমাণ শেষে সোমবার রিপন মোল্যাকে মৃত্যুদণ্ড ও ২০ হাজার টাকা জরিমানার আদেশ দেন বিচারক। এছাড়া জব্দকৃত আলামত রাষ্ট্রের অনুকূলে বাজেয়াপ্ত ও বিধি মোতাবেক ধ্বংসের নির্দেশ দেওয়া হয়।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন পিপি অ্যাডভোকেট ইমদাদুল হক।