ব্যাংকের মালিকানায় আসছেন ক্রিকেটার সাকিব

12

ব্রোকারেজ হাউজ, স্বর্ণ আমদানিকারক ও কাঁকড়া চাষের পর এবার ব্যাংক খাতের সঙ্গে যুক্ত হচ্ছেন বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার ক্রিকেটার সাকিব আল হাসান। নতুন লাইসেন্স প্রাপ্তির অপেক্ষায় থাকা পিপলস ব্যাংকের দুটি পরিচালক পদের মালিক হতে পারেন তিনি। এর মধ্যে রয়েছেন সাকিব নিজে এবং তার মা শিরিন আক্তার।

উদ্যোক্তা হিসেবে কোনো ব্যাংকের পরিচালনা পর্ষদের সদস্য হতে হলে প্রয়োজন হয় সর্বনিম্ন ২ শতাংশ শেয়ারের। পিপলস ব্যাংকের প্রতিটি পরিচালক পদের জন্য সর্বনিম্ন ১০ কোটি টাকা মূলধন জোগান দিতে হবে। তবে সাকিব আল হাসান ব্যাংকটির মালিকানায় আসতে ২৫ কোটি টাকারও বেশি মূলধন জোগান দিচ্ছেন। পিপলস ব্যাংকের একটি সূত্র এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।

বাংলাদেশ ব্যাংক ২০১৯ সালের ১৭ ফেব্রুয়ারি পরিচালনা পর্ষদের সভায় বেঙ্গল কমার্শিয়াল, সিটিজেনস ও পিপলস নামে নতুন তিন ব্যাংকের অনুমোদন দেয়।

এর মধ্যে বেঙ্গল কমার্শিয়াল ব্যাংক চলতি বছর থেকে কার্যক্রম শুরু করেছে। আর কার্যক্রম শুরুর প্রস্তুতি নিচ্ছে সিটিজেনস ব্যাংক।

তবে পিপলস ব্যাংক উদ্যোক্তাদের কয়েকজনের অর্থের উৎসে অনিয়ম খুঁজে পায় কেন্দ্রীয় ব্যাংক। লেটার অব ইনটেন্ট-এলওআই পাওয়ার পর দীর্ঘ সময় পেরিয়ে গেলেও পিপলস ব্যাংক এখনো লাইসেন্স নিতে পারেনি। পরে বিতর্কিত উদ্যোক্তাদের বাদ দিলে ব্যাংকটির এলওআই এর ওপর থেকে স্থগিতাদেশ প্রত্যাহার হয়।