ব্রাজিলে ভারতের পাঠানো ২০ লাখ টিকার প্রয়োগ শুরু

50
মহামারি করোভাইরাসে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হওয়া দেশের তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে থাকা ব্রাজিলে গেল সোমবার থেকে টিকাদান কর্মসূচি শুরু হয়েছে। তারা শুরুটা করেছে চীনের তৈরি সিনোভ্যাক দিয়ে। তবে স্থানীয় সময় শনিবার (২৩) সকাল থেকে ভারতের পাঠানো অক্সফোর্ডের অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকাদানও শুরু হয়।

মূলত ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে বিশেষ অনুরোধ করে এই ২ মিলিয়ন তথা ২০ লাখ ডোজ টিকা চেয়ে এনেছেন ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট জাইর বোলসোনারো। যাতে টিকা প্রয়োগ শুরু হওয়ার পর ঘাটতি না পরে।

অবশ্য ব্রাজিল নিজ দেশেই চীনের সিনোভ্যাকের ১০০ মিলিয়ন ডোজ উৎপাদন করবে। ইতোমধ্যে তারা ৬০ মিলিয়ন উৎপাদনও করেছে। কিন্তু চীন থেকে করোনার টিকা তৈরির উপাদান আসতে দেরি হওয়ায় সেটি কিছুটা ধীর গতিতে চলছে। সে কারণেই ভারত থেকে ২০ লাখ ডোজ নিয়ে এসেছে।

এদিকে শনিবারও ব্রাজিলের বিভিন্ন শহরে বোলসোনারোর বিরুদ্ধে বিক্ষোভ মিছিল করেছে সাধারণ জনগন। মূলত প্রেসিডেন্ট হিসেবে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ও মৃত্যুহার রুখতে তার অদূরদৃষ্টি সম্পন্ন সিদ্ধান্তের সমালোচনা করে এবং তার পদত্যাগ দাবি করে এই বিক্ষোভ হচ্ছে।

অবশ্য করোনার শুরু থেকেই নানারকম খামখেয়ালিপূর্ণ সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তিনি। যেটার খেসারত দিতে হয়েছে দেশটির জনগনকে। এ পর্যন্ত দেশটিতে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ২ লাখ ১৫ হাজার জন মারা গেছে করোনা আক্রান্ত হয়ে। আক্রান্ত হয়েছে কমপক্ষে ৮৭ লাখ।