মিয়ানমারে একদিনেই ২০ বিক্ষোভকারী নিহত

63

মিয়ানমারে সোমবারের বিক্ষোভে কমপক্ষে ২০ বিক্ষোভকারী নিহত হয়েছে বলে স্থানীয় একটি পর্যবেক্ষণ সংস্থা নিশ্চিত করেছে। দেশটিতে সামরিক জান্তা সরকার বিরোধী বিক্ষোভ চলছেই।

গত ১ ফেব্রুয়ারি মিয়ানমারের বেসামরিক সরকারকে সরিয়ে ক্ষমতা দখল করে নেয় সেনাবাহিনী। তারপর থেকেই বেসামরিক সরকারের হাতে ক্ষমতা ফিরিয়ে দিতে সামরিক বাহিনীর বিরুদ্ধে রাজপথে বিক্ষোভ করে যাচ্ছে দেশটির বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ। নিরাপত্তা বাহিনীর কঠোর অবস্থানও তাদের বিক্ষোভ থেকে সরাতে পারছে না।

প্রায় প্রতিদিনই বিক্ষোভে অংশ নেয়া লোকজনের ওপর টিয়ার গ্যাস, রাবার বুলেট এবং তাজা গুলি ছুড়ছে পুলিশ ও সেনাবাহিনী। দিন দিন মিয়ানমারের পরিস্থিতি আরও উত্তপ্ত হয়ে উঠছে।

স্থানীয় পর্যবেক্ষণ সংস্থা অ্যাসিসটেন্স অ্যাসোসিয়েশন ফর পলিটিক্যাল প্রিজনার্স জানিয়েছে, সোমবারের সহিংসতায় কমপক্ষে ২০ জনের মৃত্যু হয়েছে।

মঙ্গলবার এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে যে, হতাহতের সংখ্যা বেড়েই চলেছে। দেশটিতে বিক্ষোভ শুরু হওয়ার পর থেকে এখন পর্যন্ত ১৮০ জনের বেশি বিক্ষোভকারী নিহত হয়েছে।

jagonews24

তবে বিক্ষোভ শুরুর পর থেকে সবচেয়ে রক্তাক্ত দিন ছিল রোববার। ওই একদিনেই মিয়ানমারের বিভিন্ন স্থানে বিক্ষোভে এদিন সেনাবাহিনী গুলি চালালে ৫০ জনের মত মারা গেছে বলে খবর পাওয়া গেছে। সবচেয়ে বেশি মানুষ মারা গেছে দেশের বৃহত্তম শহর ইয়াঙ্গুনে।

এদিকে, সেনাবাহিনী সারাদেশে আরো নতুন নতুন এলাকায় কঠোরভাবে সামরিক আইন আরোপ করতে শুরু করেছে।

অভ্যুত্থানের পর থেকে দেশটির বেসামরিক সরকারের প্রধান অং সান সু চিসহ বেশ কয়েকজন নেতাকে গ্রেফতার করা হয়। তবে সু চিকে এখন কোথায় রাখা হয়েছে তা পরিষ্কার নয়।

গত নভেম্বরের নির্বাচনে সু চির দল এনএলডি সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জন করে। কিন্তু ভোটের ফলাফল প্রকাশের পর থেকেই নির্বাচনে জালিয়াতির অভিযোগ আনে সামরিক বাহিনী।