রাজশাহী-ময়মনসিংহ ও চট্রগ্রামে করোনায় আরও ৩১ মৃত্যু

14

দেশের তিন জেলায় গত ২৪ ঘন্টায় করোনায় আরও ৩১ জনের মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে রাজশাহীতে ১৪, ময়মনসিংহে ৭ ও চট্রগ্রামে ১০ জন করোনা রোগী রয়েছেন। বিস্তারিত প্রতিনিধির পাঠানো খবরে-

রাজশাহী : রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালের করোনা ইউনিটের বিভিন্ন ওয়ার্ডে আরও ১৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। এদের মধ্যে করোনায় সাতজন ও উপসর্গে বাকি সাতজন মারা যান।

সোমবার (৩০ আগস্ট) সকালে রামেক হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল শামীম ইয়াজদানী বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

রামেক হাসপাতাল সূত্র জানায়, গত ২৪ ঘণ্টায় রামেক হাসপাতালের পিসিআর মেশিনে ৯৪টি নমুনা পরীক্ষায় ১৭ জনের করোনা পজিটিভ রিপোর্ট এসেছে। অন্যদিকে, মেডিকেল কলেজের পিসিআর মেশিনে ২৮৩ জনের নমুনা পরীক্ষায় ২৫ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। পরীক্ষা বিবেচনায় রাজশাহীতে শনাক্তের হার ১২ দশমিক ৮৪ শতাংশ।

ময়মনসিংহ : ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ (মমেক) হাসপাতালের করোনা ইউনিটে আরও সাতজনের প্রাণহানি হয়েছে। এদের মধ্যে দুজন করোনায় এবং পাঁচজন উপসর্গ নিয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান। সোমবার (৩০ আগস্ট) সকালে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন হাসপাতালের করোনা ইউনিটের মুখপাত্র ডা. মহিউদ্দিন খান মুন।

তিনি জানান, রোববার সকাল ৮টা থেকে সোমবার সকাল ৮টার মধ্যে ইউনিটটিতে করোনায় মারা যাওয়া দুজনের মধ্যে ময়মনসিংহ সদরের হালিমা খাতুন (৩৫) ও অন্যজন নেত্রকোনা সদরের হোসনে আরা (৬২)।

এ ছাড়াও ওই সময়ের মধ্যে করোনার উপসর্গ নিয়ে মারা যাওয়া পাঁচজনের মধ্যে ময়মনসিংহের তিনজন, নেত্রকোনা ও জামালপুরের একজন রয়েছেন। তারা হলেন- ময়মনসিংহের গৌরীপুর উপজেলার নূর হোসেন (৫৫), সাত্তার খান (৫৫), গফরগাঁওয়ের শামসুন্নাহার (৮৫), নেত্রকোনার দূর্গাপুরের জয়নব বানু (৭০) ও জামালপুরের ইসলামপুর উপজেলার করিমন (৫২)।

ডা. মুন আরও জানান, করোনা ইউনিটটে বর্তমানে রোগী ভর্তি আছেন ১৭৫ জন। এর মধ্যে ১২ জন আইসিইউতে আছেন। ওই সময়ে নতুন রোগী ভর্তি হয়েছেন ১৬ জন ও সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ২৩ জন।

এদিকে জেলায় এক দিনে ৫৪৫ জনের নমুনা পরীক্ষায় ৭৩ জনের শরীরে করোনাভাইরাসের উপস্থিতি পাওয়া গেছে। পরীক্ষা বিবেচনায় শনাক্তের হার ১৩ দশমিক ৩৯ শতাংশ বলে জানিয়েছেন জেলা সিভিল সার্জন ডা. নজরুল ইসলাম।

চট্টগ্রাম : চট্টগ্রামে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় ১০ জন মারা গেছেন। আর একই সময়ে নতুন করে ১৪৪ জনের দেহে করোনা শনাক্ত হয়েছে।

সোমবার রাতে চট্টগ্রাম জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয় থেকে প্রকাশিত প্রতিবেদনে এ তথ্য জানা গেছে। এর আগে, রোববার করোনায় মারা গিয়েছিলেন ৪ জন, শনাক্ত হয়েছিলেন ২৬৭ জন।

এ বিষয়ে জেলা সিভিল সার্জন ডা. সেখ ফজলে রাব্বি বলেন, চট্টগ্রামের ১০টি ল্যাবে ১ হাজার ৪২ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ১৪৪ জনের মধ্যে করোনাভাইরাস পাওয়া গেছে। তাদের মধ্যে চট্টগ্রাম নগরেরই ৯৪ জন। বাকিরা বিভিন্ন উপজেলার। গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা শনাক্তের হার ১৩ দশমিক ৮১ শতাংশ।

সাতকানিয়ায় ৩, আনোয়ারায় ১, চন্দনাইশে ৬, পটিয়ায় ৬, বোয়ালখালীতে ২, রাঙ্গুনিয়ায় ১, রাউজানে ২০, হাটহাজারীতে ৩ ও সীতাকুণ্ডে ৮ জন করোনা শনাক্ত হয়েছেন।

চট্টগ্রামে এ পর্যন্ত শনাক্ত হয়েছেন ৯৯ হাজার ১৩৫ জন। মোট শনাক্তের মধ্যে চট্টগ্রাম নগরেরই ৭২ হাজার ১০৭ জন। বাকি ২৭ হাজার ২৮ জন বিভিন্ন উপজেলার।

গত ২৪ ঘণ্টায় চট্টগ্রামে করোনা আক্রান্ত হয়ে মারা যাওয়াদের ৬ জন নগরের বাসিন্দা, বাকি ৪ জন বিভিন্ন উপজেলার। করোনা আক্রান্ত হয়ে চট্টগ্রামে এ পর্যন্ত মোট ১ হাজার ২২৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে ৬৮৮ জন চট্টগ্রাম নগরের। আর বিভিন্ন উপজেলায় মারা গেছেন ৫৩৭ জন।