রোনালদোর জোড়া গোলে পর্তুগালের নাটকীয় জয়

7

শুরুতেই এগিয়ে যাওয়ার সুযোগ পেয়েছিল পর্তুগাল। কিন্তু পেনাল্টি মিস করে বসেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো। খানিক বাদে উল্টো লিড নিয়ে নেয় আয়ারল্যান্ড। যা ধরে রাখে ম্যাচের ৮৮ মিনিট পর্যন্ত। ঠিক তখনই নিজের প্রথম ভুলের মাশুল দেন বর্তমান বিশ্বের অন্যতম সেরা তারকা।

এক পেনাল্টি মিসের বিপরীতে শেষ সময়ে গিয়ে জোড়া গোল করে দলকে নাটকীয় এক জয় এনে দিয়েছেন পর্তুগিজ সুপারস্টার। তার জোড়া গোলেই আয়ারল্যান্ডকে ২-১ গোলে হারিয়েছে পর্তুগাল। পাশাপাশি ১১১ গোল করে আন্তর্জাতিক ফুটবলে এখন সর্বোচ্চ গোলস্কোরার রোনালদো।

বুধবার রাতে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে বিশ্বকাপ বাছাইয়ের ম্যাচটিতে একচ্ছত্র আধিপত্য ছিল পর্তুগালের। ম্যাচের তিন-চতুর্থাংশ সময় বলের দখল ছিল তাদের নিয়ন্ত্রণে। গোলের জন্য অন্তত ২৯টি শট করেছে তারা, যার মধ্যে সাতটি ছিল লক্ষ্য বরাবর। অন্যদিকে সারা ম্যাচে মাত্র ২টি শট লক্ষ্যে রেখেছে আইরিশরা।

কিন্তু ম্যাচের প্রথম গোলটি করেছিল আয়ারল্যান্ডই। অবশ্য পর্তুগাল পেতে পারত প্রথম গোল। ম্যাচের ১৫ মিনিটের দিকে ডি-বক্সের মধ্যে ফাউলের শিকার হন ব্রুনো ফার্নান্দেস। রেফারি বাজান পেনাল্টির বাঁশি। সেটি কাজে লাগাতে পারেননি রোনালদো, দুর্বল শট ঠেকিয়ে দেন আইরিশ গোলরক্ষক।

শুরুতেই বড় বাঁচা বেঁচে যাওয়ার পর প্রথমার্ধের বিরতির ঠিক আগে দিয়ে লিড নেয় আয়ারল্যান্ড। কর্নার থেকে আসা বলে লাফিয়ে উঠে হেড করে দলকে এগিয়ে দেন জন ইগান। দ্বিতীয়ার্ধে ফিরে ব্যবধান দ্বিগুণ করার সুযোগও পেয়েছিল তারা। কিন্তু কানোলির লক্ষ্যভ্রষ্ট শটে তা হয়নি।

একসময় মনে হচ্ছিল এক গোলেই জিতে যাবে আইরিশরা। কিন্তু ভিন্ন ভাবনাই ছিল রোনালদো। ম্যাচের ৮৯ মিনিটের সময় গনজালো গুইদেসের ক্রসে হেডে বল জালে পাঠান রোনালদো। যার ফলে ম্যাচে ফেরে সমতা আর আলি দাই-ইকে পেছনে ফেলে রোনালদোই হয়ে যান আন্তর্জাতিক ফুটবলে সর্বোচ্চ গোলদাতা।

ম্যাচের নাটকীয়তা বাকি ছিল তখনও। অতিরিক্ত যোগ করা সময়ের ষষ্ঠ মিনিটে পর্তুগিজ সমর্থকদের উল্লাসে ভাসিয়ে জয়সূচক গোলটিও করেন রোনালদো। এবার ডান দিক থেকে হোয়াও মারিওর ক্রসে আরেকটি হেডে জয় নিশ্চিত করলেন সদ্য ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডে ফেরা রোনালদো।

নাটকীয় জয়ের সুবাদে ‘এ’ গ্রুপের শীর্ষস্থানে বসেছে পর্তুগাল। চার ম্যাচে তিন জয় ও এক ড্রয়ে তাদের সংগ্রহ ১০ পয়েন্ট। এক ম্যাচ কম খেলে ৭ পয়েন্ট নিয়ে দুই নম্বরে সার্বিয়া। তিন ম্যাচের সবকয়টি হেরে পাঁচ দলের মধ্যে চার নম্বরে আয়ারল্যান্ড