লকডাউনের নবম দিন : রাজধানীজুড়ে সুনসান নিরবতা

31

লকডাউনের সময় বাড়ানোর পর আজ নবম দিনে এসে শুক্রবার সাপ্তাহিক ছুটি হওয়ায় সড়কে যানবাহন ও মানুষের উপস্থিতি কম দেখা গেছে। এইদিন সকাল থেকে রাজধানীর রাস্তায় মানুষ কম বের হয়েছে অন্যান্য দিনের তুলনায়। ফলে ঢাকার রাস্তা প্রায় সুনসান।

শুক্রবার (৯ জুলাই) রাজধানীর বাসাবো, গুলিস্তান, মালিবাগ, কুড়িল বিশ্বরোড এলাকা ঘুরে দেখে গেছে- লকডাউনে গণপরিবহন না চলার পাশাপাশি আগের দিনগুলোর তুলনায় সড়কে মানুষ ও যানবাহন অনেক কম। সড়কে অল্প সংখ্যক ব্যক্তিগত গাড়ি, ট্রাক, কাভার্ড ভ্যান, পিকআপ চলছে। তব অন্য সব বাহনের তুলনায় আজ রিকশার সংখ্যা কিছুটা বেশি। সেই সঙ্গে অন্যান্য দিনের মতোই সড়কে অনুমোদিত দোকান ছাড়া বাকি সব বন্ধ থাকতে দেখে গেছে।

রাজধানীর বাসাবো থেকে শাহবাগ যাওয়ার জন্য অপেক্ষা করছিলেন মাসুম নামের একজন। তিনি বলেন, লকডাউন শুরুর প্রথম তিনদিন খুব ভালোভাবে লকডাউন পালিত হয়েছে। এরপর থেকে সড়কে মানুষ ও যানবাহনের সংখ্যা অনেক বেড়ে যায়। কিন্তু আজ শুক্রবার সাপ্তাহিক ছুটির দিন হওয়ায় সকালে সড়কে মানুষের উপস্থিতি অনেক কম। সেই সঙ্গে যানবাহনের সংখ্যাও কম।

মালিবাগ মোড়ে রিকশা নিয়ে অপেক্ষা করছিলেন চালক সুজন মোল্লা। তিনি বলেন, আজ শুক্রবার তাই বাইরে মানুষ কম, এজন্য খ্যাপ পাচ্ছি না। অন্যদিন যেখানে সকাল ১১টার মধ্যে থেকে ৩০০/৪০০ টাকার ভাড়া মারা হয়ে যায়, আজ সেখানে মাত্র ১২০ টাকার ভাড়া মেরেছি।

পুরান ঢাকার লালবাগ থেকে গুলিস্তান রিকশায় এসেছেন মিন্টু নামের একজন। তিনি বলেন, অন্যদিন এই সময় সড়কে অনেক মানুষের ভিড় থাকে। আজ শুক্রবার সাপ্তাহিক ছুটি হওয়ার কারণে মানুষের উপস্থিতি তেমন একটা দেখা যাচ্ছে না।