শরীরে শেষ রক্তবিন্দু থাকাবস্থায় ৭১’র সেনানীদের স্বপ্ন বাস্তবায়নে কাজ করবো এমপি শাহে আলম

19

মো. সুজন মোল্লা
বরিশালের বানারীপাড়ায় মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবন কাজের উদ্বোধন করা হয়েছে। ৬ ফেব্রুয়ারী (রবিবার) বেলা ১১টায় ৫তলা ভীত বিশিষ্ট উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্সের তৃতীয় তলা ভবন নির্মাণ কাজের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতা করেন স্থানীয় সংসদ সদস্য, বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক সভাপতি মো. শাহে আলম। তিনি বলেন, যাঁদের (বীর মুক্তিযোদ্ধা) আত্মত্যাগের বিনিময়ে এই প্রিয় মাতৃভূমি তাদের মাথার ওপরে শীতল ছাঁয়া নির্মাণে কারও ষড়যন্ত্রই সফল হবেনা। শরীরে শেষ রক্ত বিন্দু থাকাবস্তায় বীর মুক্তিযোদ্ধাদের সন্মানে কাজ করে যাবো।

স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রনালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য মো. শাহে আলম এমপি আরও বলেন, আল্লাহর রহমতে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের বাংলাদেশ এখন উন্নয়নের মহা-সড়কে রয়েছে। যার ছোঁয়া বরিশাল-২ আসনেও চলমান রয়েছে। তাই আসুন ষড়যন্ত্র না করে সবাই মিলে স্বাধীন বাংলার স্থপতির তনয়া প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিতে রূপান্তরিত করি। তা না হলে দুর্নীতিবাজ, লুটেরা ও চক্রান্ত-ষড়যন্ত্রকারীদের ঠাই বানারীপাড়ার পবিত্র মাটিতে হবে না। উন্নয়ন কর্মকান্ড তার নিজস্ব গতিতে চলবে।

বানারীপাড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রিপন কুমার সাহার সভাপতিত্বে ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন বানারীপাড়া উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ্ব গোলাম ফারুক, বরিশাল জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা হেমায়েত উদ্দিন হাওলাদার, মুক্তিযোদ্ধা সেক্টর কমান্ডারস ফোরামের বরিশাল বিভাগীয় প্রধান প্রদীপ কুমার ঘোষ, মুক্তিযুদ্ধ কালীণ বেজ কমান্ডার বেণী লাল দাস গুপ্ত বেণু দাদা, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান নুরুল হুদা, উপজেলা প্রকৌশলী হুমায়ুন কবির, থানার অফিসার ইনচার্জ হেলাল উদ্দিন, বরিশাল সদর মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার আনসার আলী হাওলাদার, বানারীপাড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য কৃষিবিদ ডা.খোরশেদ আলম সেলিম, উপজেলা মানবাধিকার কমিশনের সভাপতি ও উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক এটিএম মোস্তফা সরদার, পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি সুব্রত লাল কুন্ডু প্রমুখ।

বানারীপাড়া প্রেসক্লাব সভাপতি রাহাদ সুমনের সঞ্চালনায় এছাড়াও বক্তৃতা করেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য ও যুবলীগের সাবেক আহবায়ক অধ্যাপক জাকির হোসেন, বাইশারী ইউনিয়ন মুক্তিযোদ্ধা সংসদের কমান্ডার জগন্নাথ প্রমুখ। এসময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা আওয়ামী লীগের ক্রিড়া সম্পাদক জাহিদ হোসেন জুয়েল, বাইশারী ইউপি চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা শ্যামল চক্রবতী, সৈয়দকাঠি ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান মোয়াজ্জেম হোসেন মন্টু, পৌর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আ.রহিম মাল, উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক যুগ্ম আহবায়ক মুন্তাকিম লস্কর কায়েস ও সুমম রায় সুমন, প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক সুজন মোল্লা, উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক জাহিদ হোসেন,

পৌর আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক হায়দার আলী, উপজেলা যুবলীগ নেতা মহসিন রেজা, তপু খান, মশিউর রহমান সুমন ও স্বপন মাঝী, উপজেলা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সুমন দেবনাথ, পৌর ছাত্রলীগের সভাপতি রুহুল আমিন রাসেল মাল, সাধারণ সম্পাদক সজল চৌধুরী, পৌর স্বেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি শফিক শাহিন, সাধারণ সম্পাদক ফয়েজ আহম্মেদ শাওন প্রমুখ। প্রসঙ্গত স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের (এলজিইডির) প্রায় ৪ কোটি টাকা অর্থায়নে বানারীপাড়া পৌর শহরের প্রাণকেন্দ্রে ৫ তলা ভীত বিশিষ্ট উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্সের তিন তলা ভবন নির্মিত হচ্ছে। এরমধ্য দিয়ে বানারীপাড়ার সাড়ে ৪ শতাধিক মুক্তিযোদ্ধার প্রাণের দাবি ও লালিত স্বপ্ন নিজস্ব মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবন নির্মাণ বাস্তবরূপ লাভ করেছে।