সোশ্যাল মিডিয়ায় হেনস্তা হলে বিটিআরসি কে জানান : চেয়াম্যান

40

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে হেনস্তার শিকারের অভিযোগ পেলে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ সংস্থা (বিটিআরসি) সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে কনটেন্ট অপসারণের অনুরোধ করতে পারে বলে জানিয়েছেন প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারম্যান শ্যাম সুন্দর শিকদার।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম, কনটেন্ট ও আনুসঙ্গিক বিষয়ে সোমবার (৬ সেপ্টেম্বর) বিটিআরসি কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি একথা জানান।

সংবাদ সম্মেলনে ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার, সচিব মো. আফজাল হোসেন অনলাইনে যুক্ত ছিলেন। এছাড়া বিটিআরসির ভাইস চেয়ারম্যান সুব্রত রায় মৈত্র বক্তব্য দেন।

বিটিআরসি চেয়ারম্যান বলেন, ‌অনেক নারী, তরুণীরা বিভিন্নভাবে বিব্রবতকর অবস্থায় পড়ছেন। আমরা তাদের পরামর্শ দেই থানায় জিডি করে কপিটা আমাদের কাছে দেন।

ডিজিটাল সিকিউরিটি এজেন্সির কাছে অভিযোগ করলেও আমরা পাই। আবার সরাসরি আমরা কাজ করি। হটলাইন, ই-মেইলে, বিটিআরসির চেয়ারম্যানের ফেসবুকে দিতে পারেন।
তিনি জানান, গত এক বছরে আপত্তিকর ১৮ হাজার ৮৩৬টি ফেসবুক লিংক, ৪৩১টি ইউটিউব লিংক ও এক হাজার ৬০টি ওয়েবসাইট লিংক বন্ধে সংশ্লিষ্ট মাধ্যমের কাছে অনুরোধ করা হয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, টেলিযোগাযোগ অধিদপ্তরের সাইবার থ্রেট ডিটেকশন অ্যান্ড রেসপন্সের মাধ্যমে এ পর্যন্ত বাংলাদেশ থেকে ২২ হাজারের বেশি পর্নোগ্রাফি ও অনলাইন জুয়ার সাইটে প্রবেশ বন্ধ করা হয়েছে।